বৃহস্পতিবার ৩০ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

>>

হাই কোর্টের নিষেদ্ধাজ্ঞা অমান্য করে হালুয়াঘাট পৌরনির্বাচনে পদ্মা ব্যাংকের ঋণ খেলাপি

নিজস্ব প্রতিবেদক:   |   সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩   |   প্রিন্ট

হাই কোর্টের নিষেদ্ধাজ্ঞা অমান্য করে হালুয়াঘাট পৌরনির্বাচনে পদ্মা ব্যাংকের ঋণ খেলাপি

ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট পৌরসভার ২নং সাধারণ ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর এবং ২০২৩ পৌরসভা নির্বাচনের ২নং সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী জনাব আব্দুল্লাহ আল ফারুক ঋণ খেলাপী মর্মে বাংলাদেশ ব্যাংকের সি.আই.বি তে প্রদর্শনে সকল আইনী বাধা-
নিষেধ অপসারিত সাবেক দি ফারমার্স ব্যাংক লিঃ বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক লিঃ এর হালুয়াঘাট শাখার খেলাপী ঋণ গ্রহীতা মল্লিক রাইস মিল মালিকআবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক দি ফারমার্স ব্যাংক লিঃ,হালুয়াঘাট শাখা থেকে বিগত ০৩/১২/২০১৪ সালে ৫০ লক্ষ টাকা ঋণ গ্রহণ করে। ঋণ গ্রহণের পরবর্তীতে নিয়মিতভাবে ঋণ গ্রহীতা অর্থ পরিশোধ না করায় খেলাপী ঋণ গ্রহীতা হিসাবে চিহ্নিত হয়। ইতোমধ্যে দি ফারমার্স ব্যাংক লিঃ এর মালিকানা ও ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তন হলেও ঋণগ্রহীতা আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক এর আচরণে কোনরূপ পরিবর্তন হয় নি।

ইতোমধ্যে ২০১৮ সালে হালুয়াঘাট পৌরসভা নির্বাচনে আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক কাউন্সিলর হিসাবে মনোনয়ন দাখিল করলে বিধি মোতাবেক নির্বাচন অফিসকে আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক এর খেলাপী ঋণের তথ্য অবগত করা হলেও আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগে রীট পিটিশন দায়ের করে প্রার্থিতা ফিরে পায় এবং নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। কিন্তু, অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় একজন জনপ্রতিনিধি হয়েও পদ্মা ব্যাংক লিঃ এর পাবলিক মানি হিসাবে পরিচিত আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক এর গৃহীত ঋণের অর্থ ২০১৭ সালের জুলাই মাস হতে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত কোন অর্থ পরিশোধ করেন নি।

পুণরায় ২০২৩ এ ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট পৌরসভার নির্বাচন তফসিল ঘোষণার পরবর্তীতে পদ্মা ব্যাংক এর নিকট মনোনয়নপত্র দাখিলকারী প্রার্থীদের হালনাগাদ ঋণের অবস্থা জানতে পত্র প্রদান করা হলে ময়মনসিংহ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে যথানিয়মে পত্র মারফত অবগত করা হয় যে, সূত্রে উল্লেখিত জনাব আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক পদ্মা ব্যাংকের হালুয়াঘাট শাখার একজন খেলাপী ঋণ গ্রহীতা। দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ তার ঋণ হিসাব অনাদায়ী হিসাবে রয়েছে। সে মর্মে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মোতাবেক এবং প্রচলিত ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর বিধান তৎসহ বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডার, ১৯৭২ এর বিধান মোতাবেক উক্ত খেলাপী ঋণ গ্রহীতার তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকে হালনাগাদ করা হয়।

উক্ত গ্রাহক জনাব আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক বাংলাদেশ ব্যাংকের উক্ত ক্ষমতাকে চ্যালেঞ্জ করে ঢাকা জেলার বিজ্ঞ ৫ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে দেওয়ানী মোকদ্দমা দায়ের করে সি.আই.বি তে নাম প্রকাশে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ প্রার্থনা করলে তা নামঞ্জুর হয়। উক্ত আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগে আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক আপীল দায়ের করে।

উক্ত আপীল প্রাথমিক শুনানী অন্তে মাননীয় বিচারপতি জনাব ফাতেমা নজিব মহোদয়ের বেঞ্চহতে বিগত ১৩/০২/২০২৩ ইং তারিখে উক্ত গ্রাহকের নাম বাংলাদেশ ব্যাংকের সি.আই.বি তে ঋণখেলাপী হিসাবে প্রদর্শন না করার ক্ষেত্রে ৬ (ছয়) মাস মেয়াদে এক অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ হাসিল করেন। পদ্মা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ উক্ত আদেশে সংক্ষুব্ধ হয়ে মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের মাননীয় আপীল বিভাগে সিভিল পিটিশন ফর লীভ টু আপীল দায়ের করে উক্ত নিষেধাজ্ঞার আদেশ স্থগিত প্রার্থনা করে। মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের মাননীয় আপীল বিভাগের চেম্বার আদালত বিগত ০৬/০৩/২০২৩ ইং তারিখে উক্ত সিভিল পিটিশন উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে শুনানী করেন।

শুনানীঅন্তে মাননীয় বিচারপতি জনাব এম ইনায়তেুর রহিম মহোদয়ের সমন্বয়ে গঠিত মাননীয় চেম্বার আদালত মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগের বিগত ১৩/০২/২০২৩ ইং তারিখের আদেশ ৮ (আট) সপ্তাহের জন্য স্থগিত করে আদেশ প্রদান করেন। সেমতে, জনাব আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক এর নাম বর্তমানে ঋণ খেলাপী হিসাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সি.আই.বি তে প্রদর্শনের ক্ষেত্রে আর কোন আইনী বিঘœ নাই, অর্থাৎ জনাব আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক একজন খেলাপী ঋণগ্রহীতা। একজন খেলাপী ঋণগ্রহীতা হিসাবে আবদুল্লাহ আল ফারুক মল্লিক স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ সংশোধিত ২০১৫ এর ১৯ ধারা বিধানমতে ২০২৩ এর হালুয়াঘাট পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

Facebook Comments Box

Posted ৬:৩৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

dainikbanglarnabokantha.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আজ বিজয়া দশমী
(866 বার পঠিত)

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক

রুমাজ্জল হোসেন রুবেল

বাণিজ্যিক কার্যালয় :

১২, পুরানা পল্টন, দারুস সালাম আর্কেড, ১০ম তলা, রুম নং-১১-এ, ঢাকা-১০০০।

ফোন: ০১৭১২৮৪৫১৭৬, ০১৬১২-৮৪৫১৮৬

ই-মেইল: newsnabokantha@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

design and development by : webnewsdesign.com