• শিরোনাম

    সিরাজগঞ্জে কথিত স্ত্রীর বাড়ি থেকে যুবকের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার

     টি,এম,এ হাসান, সিরাজগঞ্জ | সোমবার, ১২ জুলাই ২০২১ | পড়া হয়েছে 178 বার

    সিরাজগঞ্জে কথিত স্ত্রীর বাড়ি থেকে যুবকের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার

    apps

    সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নের কালিয়া গ্রামের বিউটি খাতুন (৪০) নামে এক কথিত স্ত্রীর বাড়ি থেকে আশরাফুল ইসলাম আশিক (৩২) নামে এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর আগে রাত ২টা থেকে সারারাত স্থানীয় কিছু যুবকরা তাকে সেই বাড়িতে বন্দি করে চাঁদা দাবি করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। পরবর্তীতে সকালে স্থানীয় সাইফুল ইসলাম, এলাকার কিছু মাতবর রা বসে তাদের বিয়ের কাগজ চাইলে সেই কাগজ দেখে সন্দেহ প্রকাশ করেন। খবর পেয়ে সকাল ৮টার দিকে নিহতের মা এসে ছেলেকে চাইলেও তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়না। পরবর্তীতে ৫মিনিটের ব্যাবধানে তার মা’কে ছেলে মারা গেছে বলে জানানো হয়। পরে দুপুর ২টার দিকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত মো. আশরাফুল ইসলাম আশিক (৩২) সদরের খামার পাইকোশা গ্রামের হেলাল উদ্দিন এর ছেলে। তিনি আগে একটি মসজিদের ঈমামতি করতেন এবং বর্তমানে এখন ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালান বলে তার পরিবার নিশ্চিত করেছেন। অন্যদিকে তাকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে এসে হত্যার অভিযোগ তুলেছেন নিহতের মা।

    সরেজমিনে গিয়ে নিহতের মা ও কথিত স্ত্রী বিউটি খাতুন (৪০) এর সাথে বলে জানা গেছে, রাত ১টার দিকে এই বাড়িতে আসেন আশরাফুল ইসলাম আশিক। তখন স্থানীয় কাদেরের ছেলে হাবু (২৫), ওহাবের ছেলে হাবিব(২৫), বাবলুর ছেলে মোমিন (২৮) সহ কিছু স্থানীয় যুবকরা সারারাত তাদের আটকিয়ে রাখেন। সকাল পর্যন্ত এভাবে আটকে রেখে হয়রানি ও চাঁদা দাবি করেন। সকালে ৮টার পরে স্থানীয় মাতবর সাইফুল ইসলাম (সাইফুল মেম্বার), গোলাম মাষ্টার সহ অন্যান্যরা বাইরে এটা নিয়ে সালিসি বৈঠকে বসলে তাদের বিয়ের কাগজ চাওয়া হয়। কাগজ দেখালে সেটা সঠিকনা বলে দাবি করা হয়। এসময় তার মা ছেলেকে নিয়ে যেতে চাইলেও তাকে নিয়ে যেতে দেয়া হয়না বলে তার মা’র দাবি।

    পরবর্তীতে অভিমানে ঘরে ঢুকে ফ্যানের সঙ্গে গামছা পেচিয়ে আত্মহত্যা করেন। জানা গেছে, গভীর রাতে আশরাফুল ইসলাম আশিকের সাথে আরেকজন এসেছিল কিন্তু তার কাছ থেকে কিছু টাকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দায়া হয়। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও বিউটি খাতুন, তার ছোট বোন বিথী খাতুন ও তার মা কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা বলে দাবি করা হচ্ছে। তারা মামলা করলে সেই অনুযায়ী তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    বাংলাদেশ সময়: ৫:২৩ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১২ জুলাই ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ