• শিরোনাম

    সহকারী কমিশনারকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিলেন  সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাব

     একেএম নূরুল আমিন গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: | মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | পড়া হয়েছে 11 বার

    সহকারী কমিশনারকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিলেন  সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাব
    apps

    গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদ আল-হাসানের বদলীজনিত  বিদায়ী সংবর্ধনা দিলেন সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাব।  মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২ টায় সহকারী কমিশনারের কার্যালয়ে তার হাতে  সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোশাররফ হোসেন বুলু,  সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, কোষাধ্যক্ষ সুদীপ্ত শামীম ও প্রচার সম্পাদক  এনামুল হক। এ সময় প্রেসক্লাবের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক আমার  সংবাদ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি নাদিম হোসেন, দৈনিক ভোরের সময়ের  প্রতিনিধি শহিদুল ইসমলাম আকন্দ, দৈনিক আমার বার্তার প্রতিনিধি জয়ন্ত সাহা  যতন, এশিয়ান টেলিভিশনের উপজেলা প্রতিনিধি মোকছেদ আল মামুন, ভোরের চেতনার  প্রতিনিধি হারুন অর রশিদ রাজু দৈনিক বাংলার নব কন্ঠ পত্রিকার গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি একেএম নূরুল আমিন প্রমূখ। সংবর্ধনার সময় গণমাধ্যমকর্মীদের উদ্দেশ্যে সহকারী কমিশনার মাহমুদ আল  হাসান বিদায়ী বক্তব্যে বলেন আমি অনেক দিন ধরে আপনাদের সাথে এবং এ  উপজেলাবাসীর সাথে ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজ করেছি। কাজ করতে গিয়ে হয়তোবা  কোন ভূল-ক্রুটি হয়েছে সেটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আর দোয়া করবেন আমি যেন  নতুন কর্মস্থলে গিয়ে সেখানকার মানুষের যেকোন প্রয়োজনে ও দেশের কল্যাণে কাজ  করতে পারি। সেই সাথে আমিও আপনাদের জন্য দোয়া করি আপনারা ভালো থাকবেন এবং পরিবারের  সদস্যদের নিরাপদে রাখবেন। দেশ ও জাতির কল্যাণে সর্বদাই সৎ পথে থেকে কাজ করে  যাবেন। তিনি এ উপজেলায় যোগদানের পর থেকে ভূমি সেবা সহজ করতে নিরলসভাবে  কাজ করেছেন। জনগণের সেবা নিশ্চিত করতে তার অফিস দালালমুক্ত করে সরাসরি তাদের  সুপরামর্শ দিয়েছেন। ইউনিয়ন ভূমি অফিসগুলো যেন সঠিকভাবে কাজ করে সেজন্য  ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত করেছেন। “ডিজিটাল মনিটরিং এন্ড ডিরেক্ট পাবলিক হেয়ারিং  সিস্টেম” চালুর মাধ্যমে ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা ও সাধারণ জনগণকে তাৎক্ষনিকভাবে  ভিডিও কলের মাধ্যমে সঠিক পরামর্শ ও সমাধান দেন। ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা ও  কর্মচারীরা অফিসে অনুপস্থিতসহ সঠিকভাবে কাজ করে কিনা তা মনিটরিং করেন।  উপজেলার ১৫ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার জনগণ দুর-দুরান্ত থেকে ভূমি সেবা নিতে এসে  বসে বিশ্রাম করতে পারেন সেজন্য নির্মাণ করেন গোল ঘর। যার নাম দেওয়া হয়েছে  “জীবন জমি ঘর”। এছাড়াও এই উপজেলায় যোগদানের পর থেকেই অবৈধভাবে বালু  উত্তোলন, আবাদি জমির মাটি কাটা বন্ধে নিয়মিত অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ  আদালতের মাধ্যমে অর্থ জরিমানা ও বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি  সরকারি খাস জমি উদ্ধার কাজে ব্যাপক তৎপরতা চালান এবং অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে  নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করেন। উল্লেখ্য, মাহমুদ আল হাসান ২০২১ সালের মার্চ  মাসে অত্র উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে যোগদান করেন। স¤প্রতি তাকে  রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) হিসেবে মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের  কার্যালয়ে বদলি করা হয়েছে।

    বাংলাদেশ সময়: ৭:০৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ