• শিরোনাম

    সরকারের প্রতি আবেদন একজন নারীর “নারীদের প্রতি সহনশীল হওয়ার

     নিজস্ব প্রতিবেদক | সোমবার, ১৪ জুন ২০২১ | পড়া হয়েছে 74 বার

    সরকারের প্রতি আবেদন একজন নারীর “নারীদের প্রতি সহনশীল হওয়ার
    apps

    আজকে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে কথা বলবো। যদিও সবাই এর গুরুত্ব বুঝে না। “লজ্জা নয় জানতে হবে, বুঝতে হবে ” আমাদের দেশে মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকের মতো নারী বাস করে। তারা বিভিন্ন সময় রাস্তাঘাটে চলেফেরা করে থাকে। কিন্ত রাস্তায় যদি তাকে প্রাকৃতিক ডাকে সারা দিতে হয় (বাথরুম পায় ) তখন তার করণীয় কি ? কেউ কি দিতে পারেন এই প্রশ্নের উত্তর? মেয়েরা সভাবতই একটু লাজুক সভাবের হয়। সে তখন কাউকে কিছু বলতেও পারে না, এই পরিস্থিতি সহ্য ও করতে পারে না।

    অনেক সময় দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে তাদের ভ্রমণ করতে হয়। এই সময়ে অনেক সময় তারা পিরিয়ডের সম্মুখীন হয়। তখন সে কি করবে? উত্তর আছে কারো কাছে? Change করার জন্যেও তার ওয়াস-রুমের (বাথরুমের) প্রয়োজন। তখন সে তা পায় না। এর জন্য মেয়েদের অনেক রুগের সম্মুখীন হতে হয়। এমনকি এখন বন্ধাত্ব হবার জন্যেও এটি দায়ী । অনেক সময় বাথরুমে যেতে হবে বলে অনেকে পানিটুকুও খায় না। বাথরুম চেপে রাখলে কিডনি সহ দেহের অন্যান্য অংগসমূহের মধ্যে এর বিরুপ প্রভাব পরে। আমরা কি পারি না এর প্রতিকার করতে ? সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। সরকার কি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে পারে না ? কি ভাবছেন ভাই? পড়ে সময় নষ্ট হলো। যদি তাই ভাবেন তাহলে বলবো আপনি জেগে জেগে ঘুমাচ্ছেন। আপনার ঘুম ভাংগে কার সাধ্যি । একদিন ঠিকই বুঝবেন, যেদিন আপনার কোন কাছের মানুষ এ রকম পরিস্থিতির মধ্যদিয়ে যাবে সেদিন বুঝবেন। আর নিজেকে ধিক্কার দেবেন। কি করতে পেরেছেন তার জন্যে? এটা ভেবে। সত্যি বলছি, না হলে মিলিয়ে নেবেন। একজন মেয়ে হতে পারে আপনার মা, বোন, বৌ অথাবা কাছের কেউ। আমরা কি পারি না তাদের জন্যে কিছু করতে? ইচ্ছে থাকলে অবশ্যই পারি। বড় পরিসরে না হলেও ছোট পরিসরে তো করতেই পারি। প্রতি জেলায় কি এমন মানুষ নেই যারা জনবহুল স্থানে ওয়াস-রুম (বাথরুম) তৈরি করার জন্যে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে। আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন যারা দান করতে চায় কিন্ত জানে না কোথায় দান করলে তার দান কাজে লাগবে, বিফলে যাবে না। অপাত্রে দান হবে না। না চাইলে নাকি আল্লাহ ও দেন না।

    সমাজে এমন অনেক বিত্তবান ব্যক্তি আছে যারা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন। টাকাই দিতে হবে এমন তো কোন কথা নেই। তিনি হয়তো জায়গার ব্যবস্থা করে দিতে পারেন। তারা জায়গার ব্যবস্থা করে দিতে পারেন বা সরকারিভাবে কোন সহযোগিতা পাবার উপায় থাকলে পরামর্শ দিতে পারেন। দায়িত্বশীল কোন উর্ধতন কর্মকর্তা থাকলে, নিজে দায়িত্ব নিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন এটাই আমাদের জোর দাবি। সবাই মিলে এটা করা কি সম্ভব? সবার সম্মতি ও সহযোগিতা কাম্য। দশে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ জাকিয়া সুলতানা রুমি কবি ও লেখক (নরসিংদী)

    বাংলাদেশ সময়: ২:৪৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৪ জুন ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ