• শিরোনাম

    শ্রীবরদীতে ইউপি নির্বাচনে ফলাফল পাল্টানো চেষ্টার অভিযোগে প্রিসাইডিং অফিসার গ্রেফতার

    এনামুল হক,শেরপুরঃ | বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 63 বার

    শ্রীবরদীতে ইউপি নির্বাচনে ফলাফল পাল্টানো চেষ্টার অভিযোগে প্রিসাইডিং অফিসার গ্রেফতার
    apps

    শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার ১নং রাণীশিমুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে নির্বাচনী ফলাফল পাল্টানো চেষ্টার অভিযোগে একে এম আবদুল্লাহ আল জসিম (৪০)নামে এক প্রিসাইডিং অফিসারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।২৭ডিসেম্বর সোমবার রাতে শ্রীবরদী উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মোঃ জিয়াউল হক বাদী হয়ে প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে নির্বাচনী ফলাফল পাল্টানোর চেষ্টার অভিযোগে ওই প্রিসাইডিং অফিসারের বিরুদ্ধে শ্রীবরদী থানায় একটি মামলা ধায়ের করেন।পরে উক্ত মামলায় রবিবার মধ্যরাতে তাকে গ্রেফতার করেন শ্রীবরদী থানা পুলিশ।গ্রেফতারকৃত একে এম আবদুল্লাহ আল জসিম রাণীশিমুল ইউনিয়নের বিলভরট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রিসাইডিং অফিসারের দায়িত্বে ছিলেন। শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস মঙ্গলবার বিকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।তিনি জানান,মামলায় অতিরিক্ত আরো অজ্ঞাতনামা ৬-৭ জনকে আসামি করা হয়েছে।পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করছে।মঙ্গলবার দুপুরে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন সহ তাকে আদালতে প্রেরণ করলে বৃহস্পতিবার রিমান্ডের শুনানীর তারিখ ধার্য করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান মাহমুদ। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়,গত রবিবার ইউপি নির্বাচনের ভোট গণনা শেষে প্রিসাইডিং অফিসার একে এম আবদুল্লাহ আল জসিম কেন্দ্রে সংশ্লিষ্ট সকল প্রার্থীর এজেন্টসহ অন্য কর্মকর্তাদের নির্বাচনী ফলাফল শিট দিয়ে কেন্দ্র থেকে চলে আসেন এবং সন্ধ্যায় তিনি উপজেলা পরিষদের নির্বাচনী নিয়ন্ত্রণ কক্ষে গিয়ে ফলাফল শিট জমা দেন।কিন্তু ওই ফলাফল শিটে ঘষামাজার চিহ্ন এবং কেন্দ্রে বিতরণ করা ফলাফল শিটের সাথে গরমিল দেখা যায়।যেখানে নির্বাচনী নিয়ন্ত্রণ কক্ষে দেওয়া শিটে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল হামিদ সোহাগের প্রাপ্ত ৬৭১ ভোটের স্থলে ৩৭১ এবং নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাসুদ রানার প্রাপ্ত ৪৯৭ ভোটের স্থলে ৭৯৭ ভোট দেখানো হয়।বিষয়টি তাৎক্ষণিক কর্মকর্তাদের নজরে আসলে আবদুল্লাহ আল জসিম কৌশলে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে পালিয়ে যান।পরে মধ্যরাতে শ্রীবরদী থানা পুলিশ প্রিসাইডিং অফিসার একে এম আবদুল্লাহ আল জসিমকে আটক করে।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী ফলাফলের শিট ঘষামাজা করার কথা স্বীকার তিনি। শেরপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শানিয়াজ্জামান তালুকদার বলেন,প্রাথমিক তদন্তে একে এম আবদুল্লাহ আল জসিমের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর বিষয়টি নির্বাচন কমিশনকে জানানো হয়।কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী সোমবার রাতে তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হয়। উল্লেখ্য,গত ২৬ ডিসেম্বর রবিবার অনুষ্ঠিত রাণীশিমুল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুল হামিদ ৪ হাজার ৯৭৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী মাসুদ রানা পেয়েছেন ৪ হাজার ৩৪৮ ভোট।

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ