• শিরোনাম

    শেরপুরে পূর্ব শত্রুতায় কৃষকের সরিষাক্ষেত জবরদখল চাষ ও অর্তকিত হামলা

     শেরপুর প্রতিনিধিঃ | শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 124 বার

    শেরপুরে পূর্ব শত্রুতায় কৃষকের সরিষাক্ষেত জবরদখল চাষ ও অর্তকিত হামলা
    apps

    শেরপুরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধসহ পূর্ব শত্রুতায় এক কৃষকের সরিষাক্ষেত জবরদখল চাষ ও অতর্কিত হামলার ঘটনার ঘটেছে।গত ২৮নভেম্বর (সোমবার)বিকাল ৩ ঘটিকার সময় শেরপুর সদর উপজেলার ১০নং চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের জংগলদী গ্রামে মোঃ রেজাউল করিম (৪০)এর সরিষাক্ষেতে এ ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়,বিআরএস-৩০১নং দাগ বাদী মোছাঃ রহিম খাতুন বিবাদী মোঃ হানিফ উদ্দিন ৯৪শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন মামলা মুক্কাদমা চলার পর বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালত গত ২৪/৭/২০১৮সালে সোলেনামা ডিক্রি প্রদান করেন যেখানে বাদী মোঃ রহিম খাতুনকে ৪৮শতাংশ এবং বিবাদী মোঃ হানিফ উদ্দিনকে ৪৬শতাংশ জমির মালিক হন।পরবর্তীতে মোছাঃ রহিমা খাতুন এর নামে ৬৯৭১নং খতিয়ানে ১৪৪৪নং দাগে ৪৮শতাংশ জমি রেকর্ড হয় এবং অন্য খতিয়ানে বিবাদী মোঃ হানিফ উদ্দিন এর নামে ৪৬শতাংশ জমি রেকর্ড হয়। গত ২৮ নভেম্বর উপরে বর্নিত ১৪৪৪নং দাগের ৪৮শতাংশ জমিতে মোছাঃ রহিমা খাতুনের ছেলে মোঃ রেজাউল এর সরিষাক্ষেত জবরদখল করে ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করে নষ্ট করে ফেলে।এখবর পেয়ে আমি মোঃ রেজাউল ও আমার ভইয়েরা সরিষা ক্ষেতে গেলে আসামীগন আমাদের উপর পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক দা,লাঠি,লোহার রড দ্বারা আমাদের প্রাণ নাশের উদ্দেশ্য করে অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে আমাদের শরীরে ভাবে গুরুতর লীলা-ফোলা বেদনাযুক্ত করে এ অবস্থায় মামলার সাক্ষী (১.মোঃ আঃ মালেক (৩৮)পিতা-মোঃ মন্জু মিয়া,২.মোঃ সাদা মিয়া (৩৫) পিতা মোঃ লেবু মিয়া,৩.মোঃ মজনু মিয়া (৬০),৪.মোঃ হামিদুল (৪৫)পিতা লেবু মিয়া এবং এলাকার লোকজন আমাদের ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে জখমী এবং মামলার বাদী মোঃ রেজাউল এবং সাক্ষী মোঃ আঃ মালেক মিয়াকে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।এমতাবস্থায় হাসপাতালে আসামীগনের হুমকি ও তোপের মুখে পড়ে হাসপাতাল থেকে জখমীদয় পুলিশকেস সম্মলিত ভর্তির কাগজ নিয়ে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এমতাবস্থায়,আইনের প্রতি সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা রেখে মামলার বাদী মোঃ রেজাউল নিম্ন বর্নিতদের আসামী করে ১.মোঃ ওহাজ মিয়া(৪৫),২.মোঃ এংরাজ(৫০),৩.মোঃ আওয়াল (৫৫),৪.এমাজ মিয়া(৪২)উভয় পিতা মৃত জহুরুল হক,৫.মোঃ মফিজুল হক(৩৫),৬.রিপন মিয়া(২২)পিতা মৃত মস্তুফা,৭.মোঃ মনোহর(কিনু)(৪৫),৮.হুমায়ুন মিয়া (২২)উভয় পিতা মোঃ আওয়াল মিয়া,৯.মুসা মিয়া(৩০),১০.সোহেল মিয়া(২৪)উভয়ের পিতা মোঃ এংরাজ আলী,১১.মোঃ হানিফ পিতা মৃত দুলাল,সর্ব সাং জংগলদী,চরক্ষিমারী,শেরপুর।এদের নামে শেরপুর সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন যাহার(জিডি নং-২০৬৮)। এব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবার লোকজন বলেন, আসামীগণ বিভিন্ন ভাবে প্রকাশ্যে আমাদের প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছে তাই আমরা নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি, যথাযথ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।এব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই মোঃ সোহেল রানা বলেন মামলার আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

    বাংলাদেশ সময়: ২:৩৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ