• শিরোনাম

    প্রতিবন্ধী শিশু শিল্পী সনজীবন সরকারের বিশেষ এক প্রতিভা

    নাসিমূল ইসলাম নাসিম (নরসিংদী) | সোমবার, ০৭ জুন ২০২১ | পড়া হয়েছে 58 বার

    প্রতিবন্ধী শিশু শিল্পী সনজীবন সরকারের বিশেষ এক প্রতিভা

    প্রতিবন্ধী শিশু শিল্পী সনজীবন সরকারের বিশেষ এক প্রতিভা

    প্রতিবন্ধী শিশু শিল্পী সনজীবন সরকার যার রয়েছে বিশেষ এক প্রতিভা(১৪)। নরসিংদী জেলা বেলাব উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের বর্মন পাড়ায় এই প্রতিভাবান শিল্পীর বাড়ি অবস্থিত। প্রচুর ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে আমরা গিয়েছিলাম এই প্রতিভাবান শিশু শিল্পী সনজীবন সরকারের খুঁজে। বেলাব উপজেলার নারায়নপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে নেমে আমরা আঁকাবাঁকা গলি দিয়ে অবশেষে পৌছে গেলাম বহু পরিচিত শিশু শিল্পী সনজীবন সরকারের বাড়িতে। বাবা ধরনী চন্দ্র বর্মন ও মাতা পূর্নিমা রানী বর্মন এর চার সন্তান এর মধ্যে ছোট ছেলে এই সনজীবন সরকার। কথা বলতেই চোখের জলে মা পূর্নিমা রানী বর্মন তার ছেলে সম্পর্কে বলতে লাগলেন। প্রতিবন্ধী সত্ত্বেও কখনো কোন ভাবেই আদর যত্নে ঘাটতি ছিল না বলে মা পূর্নিমা রানী বর্মন জানান। প্রতিবন্ধী শিশু হিসেবে ৩য় শ্রেনী পর্যন্ত পড়াশোনা করিয়েছেন। শিশু অবস্থায় তার গানের প্রতি ছিল অসম্ভব খেয়াল।
    সনজীবন সরকারের নিকট আত্মীয় এক ঠাকুর মার আগ্রহে আস্তে আস্তে গানের জগতে পা রাখেন। ধীরে ধীরে এই অন্ধ শিশু শিল্পীর সুনাম ছড়িয়ে পড়ে দেশের আনাচে কানাচে। কোন শিক্ষা না থাকা সত্ত্বেও সনজীবন সরকার নিজেই কিবোর্ড বাজাতে পারেন এবং যেকোন গানের সুর তুলতে পারেন। অসম্ভব গলা যা নিজ কানে না শুনলে ভাবতেই পারা যায় না যে  কত সুন্দরতম সুর। বলতেই নিজ গলায় একটি নবীজী সানে ভক্তিমূলক গান গেয়ে শোনালেন। এর পর নিজেই কিবোর্ড বাজিয়ে আমাদের কে পর পর চারটি গান গেয়ে শোনান। জিজ্ঞেস করতে শিল্পী সনজীবন সরকার বলেন যে, একজন খ্যাতিমান শিল্পীর কাছে গিয়ে আরো বেশি কিছু শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে ভালো একজন শিল্পী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। বাবা ধরনী চন্দ্র বর্মন বলেন যে, সরকার থেকে একটি প্রতিবন্ধী ভাতা পাই । তবে ছেলের প্রতিভাকে কাজে লাগাতে পারলে আমার পরিবার ও দেশ উভয় উপকৃত হবে। তিনি সরকার সহ অন্যান্যদের কাছে ছেলের জন্য সহযোগিতা কামনা করেন। পার্শ্ববর্তী প্রতিবেশীদের সাথে আলাপ করে জানা যায় বাবা একজন রিকশাচালক ।
    বর্তমান সময়ে সনজীবন সরকারের গানের সুবাধে কিছুটা হলেও পরিবার উপকৃত হচ্ছে। লাখ লাখ মানুষ ইউটিউব ভিডিওতে সনজীবন সরকারের গান দেখছে। অনেক ইউটিউবার সনজীবন সরকারের গান ইউটিউব চ্যানেলে দিয়ে অর্থ আয় করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন বিয়ে , সামাজিক অনুষ্ঠানে ও মাজারে গিয়ে গান পরিবেশন করেন। পরিবারের আশা সনজীবন একদিন টেলিভিশন চ্যানেল সহ আরো বড় বড় কোন প্লাটফর্মে তার পারফর্ম করতে পারবে, সেই প্রত্যাশা পূরণে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

    বাংলাদেশ সময়: ৮:৫০ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৭ জুন ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ