মঙ্গলবার ১৬ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১ শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

>>

পর্তুগাল-স্পেন ম্যাচে কোনো দলই জিততে পারেনি

  |   বৃহস্পতিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২০   |   প্রিন্ট

পর্তুগাল-স্পেন ম্যাচে কোনো দলই জিততে পারেনি

ক্রীড়া প্রতিবেদক: ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর শট ক্রসবারে লেগে ফিরে আসায় কাল লিসবনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক ম্যাচে স্পেনের বিপক্ষে জয় পায়নি পর্তুগাল। শেষ পর্যন্ত গোলশুন্য ড্র নিয়েই ঘরে ফিরতে হয়েছে ইউরোপিয়ান দুই জায়ন্টারদের। পর্তুগালের হয়ে রোনালদো ও রেনাটো সানচেজ দুজনের বলই ক্রসবারে লেগে ফিরে এলে আর গোল পাওয়া হয়নি । যে কারণে বলাই যায় কাল ভাগ্য সহায় ছিলনা পর্তুগীজদের। এমনকি ইনজুরি টাইমে হুয়াও ফেলিক্স গোলের সুযোগ নষ্ট না করলে তখনই হয়ত হাসতে পারতো রোনালদোরা।

 

যদিও লিসবনের হোসে আলভালদে স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুতে স্পেনই আধিপত্য দেখিয়েছে। ২২ বছর বয়সী মিডফিল্ডার দানি ওলমোর হাত ধরে স্পেন শুরুতে এগিয়ে যাবার সুযোগও পেয়েছিল। কিন্তু সে যাত্রা রক্ষা পায় স্বাগতিকরা। আসন্ন নেশন্স লিতকে সামনে রেখে প্রস্তুতি ম্যাচ হিসেবে বিবেচিত এই প্রীতি ম্যাচে শেষ পর্যন্ত কোন দলের ভাগ্যেই জয় জুটেনি। স্প্যানিশ কোচ লুইস এনরিকে বলেছেন, ‘আমি মনে করি আমরা পর্তুগালের চেয়ে ভাল খেলেছি। ম্যাচে আমাদেরই আধিপত্য ছিল। যদিও বিরতির পর তাদের দুটি শট বারে লাগে এবং আরেকটি কেপা বাঁচিয়ে দেয়। কিন্তু আমরাও সুযোগ সৃষ্টি করেছিলাম।’

 

নেশন্স লিগ গ্রুপে উভয় দলই নিজ নিজ গ্রুপে শীর্ষে অবস্থান করছে। ক্রোয়েশিয়া ও সুইডেনকে হারিয়ে পর্তুগাল প্রথম দুই ম্যাচ থেকে শতভাগ পয়েন্ট তুলে নিয়েছে। অন্যদিকে ইউক্রেনকে বিধ্বস্ত করার পর জার্মানীর সাথে ড্র করায় স্পেনের সংগ্রহে আছে চার পয়েন্ট।আগামী শনিবার সুইজারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে স্পেন। তিনদিন পর তাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ ইউক্রেন। রবিবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের মোকাবেলা করবে রোনালদোর দল। তিনদিন পর ঘরের মাঠে সুইডেনকে আতিথ্য দিবে।

 

বিরতির সময় উভয় দলের ফুটবল ফেডারেশনের থেকে ঘোষণা দেয়া হয় ২০৩০ বিশ্বকাপে দুই দেশ মিলে যৌথ বিডে অংশ নিবে। এক্ষেত্রে তারা মরক্কো ছাড়াও উরুগুয়ে, আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও চিলির আরেকটি যৌথ বিডের বিপক্ষে লড়বে। সর্বশেষ এই দুটি দল ২০১৮ সালের বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়েছিল। উত্তেজনাকর ঐ ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোলে ড্র হয়। ম্যাচে রোনালদো হ্যাটট্রিক করেছিলেন। এর মধ্যে একটি ছিল ফ্রি-কিক থেকে দুর্দান্ত একটি গোল যার মাধ্যমে পর্তুগাল ম্যাচে সমতা ফিরিয়েছিল।

 

তবে ওই ম্যাচটির তুলনায় কালকের ম্যাচটি ছিল অনেকটাই জৌলুসহীন। আগামী বছর ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপকে সামনে রেখে দুই দলই নিজেদের পুনর্গঠনের কাজে ব্যস্ত রয়েছে। ২০১৬ সালে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশীপে ইতালির কাছে পরাজিত হবার পর এই প্রথম স্পেন কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচে গোল করতে ব্যর্থ হলো।

 

লুইস এনরিকে মূল একাদশ নিয়ে অনেকটাই পরীক্ষা করেছেন। চেলসিতে ধুকতে থাকা গোলরক্ষক কেপা আরিজাবালাগার সাথে সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে ছিলেন ম্যানচেস্টার সিটির ১৯ বছর বয়সী এরিক গার্সিয়া। মধ্যমাঠে প্রথমবারের মত খেলতে নেমেছিলেন সার্জিও ক্যানালেস। পর্তগালের হয়ে কাল মাঠ নেমেছিলেন সদ্য বার্সেলেনোয় যোগ দেয়া ২০ বছর বয়সী ফ্রান্সিসকো ট্রিনকাও। রোনালদো ও আন্দ্রে সিলভার সাথে আক্রমনভাগে তিনি ছিলেন। প্রথম ২৫ মিনিট স্পেন দুর্দান্ত খেললেও কোন সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। খুব কাছে থেকে গোল মিস করেছেন জেরার্ড মোরেনো। ওলমোর ভলি পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়।

 

দ্বিতীয়ার্ধে পর্তুগাল গোলের অনেকটাই কাছাকাছি চলে এসেছিল। রোনালদোর বাম পায়ের জোড়ালো শট ক্রসবারে লেগে ফেরত আসে। এরপর তার কার্ভিং পাসে রেনাটোর শট আবারো বারে লাগলে হতাশ হতে হয় স্বাগতিকদের। ইনজুরি টাইমে ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি নষ্ট করেন ফেলিক্স।

Facebook Comments Box

Posted ৩:৩৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২০

dainikbanglarnabokantha.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক

রুমাজ্জল হোসেন রুবেল

বাণিজ্যিক কার্যালয় :

১৪, পুরানা পল্টন, দারুস সালাম আর্কেড, ১০ম তলা, রুম নং-১১-এ, ঢাকা-১০০০।

ফোন: ০১৭১২৮৪৫১৭৬, ০১৬১২-৮৪৫১৮৬

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

design and development by : webnewsdesign.com