• শিরোনাম

    নাজিরপুরে এক পরিবারের সবাইকে চেতনা নাশক ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সর্বস্ব লুট

    শফিকুল ইসলাম, নাজিরপুর প্রতিনিধি: | বুধবার, ১৯ মে ২০২১ | পড়া হয়েছে 126 বার

    নাজিরপুরে এক পরিবারের সবাইকে চেতনা নাশক ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সর্বস্ব লুট
    apps

    পিরোজপুরের নাজিরপুরে গত মঙ্গলবার রাতের (১৮ মে রাতে) ভাত খাবার শেষে কথিত বিথি নামের এক মহিলা লেবুর সর্বতের পানির সাথে এক পরিবারের সবাইকে চেতনা নাশক ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সর্বস্ব লুটে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বেলা অধিক হলেও বাড়িতে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে স্থানীয় লোকজন ওই পরিবারের ৩ সদস্যকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
    অচেতন ব্যক্তিরা হলেন, নাজিরপুর উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের দক্ষিন জয়পুর গ্রামের মৃত উপেন্দ্রনাথ মিস্ত্রীর ছেলে রমেন্দ্র নাথ মিস্ত্রী (৪৩),স্ত্রী মালা মিস্ত্রী (৩৮),এবং রমেন্দ্র নাথের শ্বাশুরী উষা রানী ঢালী (৬০)। এদের মধ্যে রমেন্দ্র নাথ মিস্ত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে পিরোজপুর আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
    রমেন্দ্র নাথের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন তারা হাসপাতালে চোখের ডাক্তার দেখাতে গেলে গাওখালী এলাকার বিথি নামক এক মহিলা দু-সর্ম্পকের বোন পরিচয় তাদের সাথে বাড়িতে বেড়াতে চলে আসে। রাতে খাবার শেষে ঔই মহিলা গরমে লেবুর সর্বত খাওয়ার অজুহাতে ঘরের সবাইকে সর্বতের সাথে চেতনা নাশক ঘুমের ঔষধ খাইয়ে অচেতন করে সর্বস্ব লুটে নিয়ে পালিয়ে যায়। । তারা আরো বলেন আমাদের ঘরের স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকা সহ প্রায় ৫ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে।
    নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্øেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. এ এইচ এম মোঃ মোস্তফা কায়সার বলেন, হাসপাতালে ভর্তি ৩ জনের মধ্যে ২ জনের অবস্থা স্থিতিশীল, একজন পুরুষের অবস্থা আশঙ্কাজনক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পিরোজপুর আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আমরা মনে করছি তাদের ঘুমের ওষুধ জাতীয় কিছু খাওয়ানো হয়েছে। এই ধরণের রোগীরা পুরোপুরি সুস্থ হতে তিন থেকে ৭ দিন পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

    বাংলাদেশ সময়: ৫:১৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১৯ মে ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ