• শিরোনাম

    নরসিংদীতে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কর্মশালা অনুষ্ঠিত

    অনলাইন ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, ০৮ এপ্রিল ২০২১ | পড়া হয়েছে 229 বার

    নরসিংদীতে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কর্মশালা অনুষ্ঠিত

    শান্ত বণিক, বিশেষ প্রতিনিধি:
    বৃহস্পতিবার ৮ এপ্রিল নরসিংদীতে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিকতা সম্পন্ন জাতি গঠনে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
    নৈতিকতা ও মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন দক্ষ ও সুনাগরিক তৈরিতে হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের মাধ্যমে বাস্তবায়নাধীন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম নরসিংদী জেলায় অপরিসীম ভূমিকা রাখছে। নরসিংদীতে মোট ৬৫টি মন্দিরে শিক্ষা কেন্দ্র রয়েছে। এতে করে ৬৫জন শিক্ষকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।
    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে একটি উদার, ধর্মনিরপেক্ষ, প্রগতিশীল, গণতান্ত্রিক ও সম্প্রীতির উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার বাস্তবরূপ দিতে তিনিই প্রথম তার ১৯৯৬-২০০১ শাসনামলে এ প্রকল্প গ্রহণ করেছিলেন। বর্তমানে প্রকল্পটির ৫ম পর্যায়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে।
    নরসিংদী জেলা প্রশাসন ও মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম নরসিংদী অফিসের আয়োজনে সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন নরসিংদী-৪ (মনোহরদী-বেলাব) আসনের সংসদ সদস্য ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্পমন্ত্রী এড. নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন নরসিংদীর পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, পিপিএম, নরসিংদী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন ভূইয়া, হিন্দুধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন প্রমূখ।
    সকাল ১১টায় মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জলন, উলুধ্বনি ও শঙ্খধ্বনির মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। এরপরপরই পবিত্র গীতা থেকে শ্লোক পাঠ করেন কেন্দ্র শিক্ষক নীলু রানী সরকার। প্রকল্পের প্রার্থনা সঙ্গীত পরিবেশন করেন কেন্দ্র শিক্ষক সাথী রায়, সীমা মোদক, উমা ও পুষ্প। প্রথমদিনের কর্মশালার আলোকে বিভিন্ন সুপারিশ উপস্থাপন করেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) সৌরেন্দ্র নাথ সাহা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, প্রকল্প পরিচালক রঞ্জিত কুমার দাস। নরসিংদী জেলার মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন শ্রী শ্রী মহাতীর্থ রামপুর কালীবাড়ি শ্মশানঘাট মন্দিরের কেন্দ্র শিক্ষক জয়ন্ত বণিক।
    অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন, নরসিংদী জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিএম তালেব, নরসিংদী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ আলী, নরসিংদী জেলা যুবলীগের সভাপতি বিজয় কৃষ্ণ গোস্বামী, নরসিংদী জেলা মনিটরিং কমিটির সদস্য রঞ্জিত কুমার সাহা, নরসিংদী প্রেসক্লাবের সভাপতি মাখন দাস, দৈনিক নরসিংদীর নবকণ্ঠের প্রধান সম্পাদক ও দৈনিক বাংলার নবকণ্ঠের বিশেষ প্রতিনিধি শান্ত বণিক, নরসিংদী জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন কুমার সাহা, নরসিংদী শহর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উত্তম কুমার মোদক, সাধারণ সম্পাদক বিণয় সাহা, শিবপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিপ্লব চক্রবর্তী, মনোহরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াশীষ রায়, অধ্যক্ষ বিরেশ্বর চক্রবর্তী, নরসিংদী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা তথ্য অফিসার, মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক (মাঠ সেবা) মদন চক্রবর্তী, উপ-প্রকল্প পরিচালক (কর্মসূচী বাস্তবায়ন ও প্রশিক্ষণ) কাকলী রানী মজুমদার, নরসিংদী জেলার সহকারি প্রকল্প পরিচালক দিপ্তী দাস, নারায়ণগঞ্জ জেলার সহকারি প্রকল্প পরিচালক শ্যামল কুমার চক্রবর্তী, ময়মনসিংহ ও সিলেটের মাস্টার ট্রেইনার কিশোর আচার্য্য, শিক্ষার্থীর অভিভাবক রিপন সরকার, জেলার ৬৫টি শিক্ষা কেন্দ্রের শিক্ষকবৃন্দসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ। কর্মশালাটি সঞ্চালনা করেন রাজশাহীর মাস্টার ট্রেইনার কানু বাঁশফোর ও পিরোজপুর জেলার সহকারী প্রকল্প পরিচালক প্রিয়াংকা শিকদার। কর্মশালায় আলোচনা শেষে সকলের মঙ্গল কামনায় সমবেত প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।
    এর আগে গত ১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জুম কনফারেন্সিং পদ্ধতিতে কর্মশালার প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাটি তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়। প্রথম অংশগ্রহণ করা দলের নাম ওয়ারী বটেশ্বর। এ দলের বিষয় ছিল শিশুর প্রারম্ভিক বিকাশে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের কেন্দ্র শিক্ষকের ভূমিকা। প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম ৫ম পর্যায় প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক রঞ্জিত কুমার দাস, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন নরসিংদী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নাসরিন আক্তার, সম্মানিত অতিথি হিসেবে ছিলেন দৈনিক নরসিংদীর নবকণ্ঠ এর প্রধান সম্পাদক ও দৈনিক বাংলার নবকণ্ঠের বিশেষ প্রতিনিধি শান্ত বণিক, জেলা মনিটরিং কমিটির সদস্য রঞ্জিত কুমার সাহা প্রমূখ। সভাপতিত্ব করেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-পরিচালক মদন কুমার চক্রবর্তী। সঞ্চালনায় ছিলেন ময়মনসিংহ বিভাগের মাস্টার ট্রেইনার কিশোর কুমার আচার্য্য। কর্মশালায় সংযুক্ত থেকে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের সহকারি প্রকল্প পরিচালক দীপ্তি দাস। এ সময় জেলার সকল উপজেলার শিক্ষকবৃন্দ সংযুক্ত ছিলেন।
    দুপুর ১২টায় জুম কনফারেন্সিং পদ্ধতিতে দ্বিতীয় অধিবেশনে অংশগ্রহণ করা দলের নাম তা¤্রলিপি। এ দলের বিষয় ছিল মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের শিক্ষাকেন্দ্রর বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা ও করণীয়। প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-পরিচালক সৌরেন্দ্র নাথ সাহা, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ব্রাহ্মন্দী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আলতাফ হোসেন নাজির, সম্মানিত অতিথি হিসেবে ছিলেন বেলাব উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আখতার হোসেন শাহিন, বেলাব থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা আজিজুর রহমান, শিবপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিপ্লব চক্রবর্তী, মনোহরদী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সঞ্জন কুমার রায় ও নরসিংদী শহর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শ্যামল কুমার সাহা। সভাপতিত্ব করেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের উপ-পরিচালক কাকলী মজুমদার। সঞ্চালনায় ছিলেন ময়মনসিংহ বিভাগের মাস্টার ট্রেইনার কিশোর কুমার আচার্য্য। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের সহকারি প্রকল্প পরিচালক দীপ্তি দাস। এ সময় জেলার সকল উপজেলার শিক্ষকবৃন্দ সংযুক্ত ছিলেন।
    বেলা ৩টায় জুম কনফারেন্সিং পদ্ধতিতে তৃতীয় অধিবেশনে অংশগ্রহণ করা দলের নাম জয়মঙ্গল। এ দলের বিষয় ছিল গীতা শিক্ষাকেন্দ্র কার্যক্রম বাস্তবায়নে নেতৃবৃন্দের ভূমিকা। প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন নরসিংদী জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অহীভূষন চক্রবর্তী, বিশেষ অতিথি ছিলেন সরকারি হোসেন আলী কলেজের অধ্যক্ষ বিরেশ্বর চক্রবর্তী। সভাপতিত্ব করেন নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের সহকারি প্রকল্প পরিচালক দীপ্তি দাস। সম্মানিত অতিথি ছিলেন পলাশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা ইয়াসমিন, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সেলিনা আক্তার, নরসিংদী জেলা কার্যালয়ের সহকারি প্রকল্প পরিচালক শ্যামল কুমার চক্রবর্তী, বেলাব উপজেলা মনিটরিং কমিটির সদস্য সুভাষ চন্দ্র দাস ও নরসিংদী শহর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উত্তম কুমার মোদক প্রমূখ। দিনব্যাপি কর্মশালায় বক্তারা গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ এপ্রিল ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ