• শিরোনাম

    নরসিংদীতে বাল্যবিবাহ বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

    অনলাইন ডেস্ক | শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০ | পড়া হয়েছে 145 বার

    নরসিংদীতে বাল্যবিবাহ বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান
    apps

    শান্ত বণিক, বিশেষ প্রতিনিধি: নরসিংদীতে বাল্যবিবাহ বন্ধে  ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

    নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন এর নির্দেশে বৃহস্পতিবার  সন্ধ্যা ৬টার দিকে বাল্যবিবাহের আয়োজন করা হয়েছিল নরসিংদী শহরের বিলাসদীর আল্লাহু চত্বর এলাকার একটি বাড়িতে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের এনডিসি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহরুখ খান সেখানে হাজির হয়ে বন্ধ করে দেন ওই অপ্রাপ্তবয়স্ক দুই কিশোর-কিশোরীর বাল্যবিবাহ।

    পৌর শহরের আল্লাহু চত্ত্বর এলাকার জামাল মিয়ার অপ্রাপ্তবয়স্ক ছেলের সঙ্গে একই এলাকার ইসমাইল মিয়ার সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ের বাল্যবিবাহ বন্ধে এই ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়।

    স্থানীয়রা জানান, নরসিংদী ডিজিটাল গার্লস হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ওই কিশোরী। অন্যদিকে ওই কিশোর বাবুর্চির কাজ করেন। কয়েক দিন আগে তাদের অভিভাবকরা মিলে দুজনের বিয়ে ঠিক করেন। বিয়ের দিন ধার্য করা হয় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কনের বাড়িতে। লোক জানাজানি এড়াতেই সন্ধ্যার দিকে এই বিয়ের আয়োজন করেন বর ও কনে পক্ষ। তবে শেষ রক্ষা হয়নি, ভেস্তে গেল এই বিয়ের আয়োজন।

    ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, বাল্যবিবাহের আয়োজন করার অপরাধে ওই কিশোর-কিশোরীর বাবা দোষ স্বীকার করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মুচলেকা দিয়েছেন। এ ছাড়া তারা ছেলের বয়স ২১ এবং মেয়ের বয়স ১৮ অর্থাৎ প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে ছেলে-মেয়েকে বিয়ে দেবেন না বলে আদালতের সামনে অঙ্গীকার করেন। এ সময় উভয়পক্ষকে বাল্যবিবাহের কুফল ও শাস্তি সম্পর্কে সচেতন করা হয়। অভিযানের সময় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ বি এম সারোয়ার রাব্বী, ভ্রাম্যমাণ আদালতের কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

    জেলা প্রশাসনের এনডিসি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহরুখ খান জানান, বাল্যবিবাহ একটি ফৌজদারী ও সামাজিক অপরাধ। বাল্যবিবাহ নিরোধ বিধিমালা ২০১৮ এর তফসিল ৪ এ বর্ণিত ফরম অনুযায়ী এই মুচলেকা আদায় করা হয়েছে।

    বাংলাদেশ সময়: ২:১৭ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ