• শিরোনাম

    নবীনগরে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

    মোঃ নিজাম উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি | বৃহস্পতিবার, ০১ জুলাই ২০২১ | পড়া হয়েছে 104 বার

    নবীনগরে রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ
    apps

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের শ্যামগ্রাম বাজারে এলজিইডির অধীনে আরসিসি সড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও কাজে নিম্নমানের ইট,বালু,রড,সিমেন্ট ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। সিডিউল মোতাবেক কাজ না হওয়া ও নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাদের দাবী সিডিউল মোতাবেক কাজ করতে হবে এবং উক্ত কাজরে মনিটরিং করার জন্য এলাকাবাসির পক্ষে ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে নিয়োগ দিতে হবে। উপজেলার শ্যামগ্রাম টু সলিমগঞ্জ সড়কে আরসিসি সড়কসহ ৩০৮০ মিটার উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যায় ধরা হয়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা। এ কাজটি পেয়েছে মেসার্স লোকমান হোসেন ট্রেডার্স নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এ প্রকল্পের মাঝে সড়কের শ্যামগ্রাম অংশে ৭৯০ মিটারের মধ্যে ২৫০ মিটার আরসিসি সড়কে অনিয়ম ও নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করার অভিযোগ উঠে। গত সোমবার (২৮/০৬/২০২১) সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, রাস্তা জুড়ে নিম্নমানের ইট, পাথর, বালু, রড ফেলে রাখা হয়েছে।

    সারফেজ স্তরটি ৭ ইঞ্চি হওয়ার কথা থাকলেও তা ৫ ইঞ্চি দেওয়া হয়েছে। বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. সামছু মিয়া, আ’লীগ নেতা মো. শামীম,সাবেক মেম্বার মিজানুর রহমান, ও শামীম মিয়াসহ এলাকার জনসাধারণের সাথে কথা বললে তারা কাজের মান নিয়ে আপত্তি তুলে বলেন, সিডিউল মোতাবেক কাজ হচ্ছে না,ইট,পাথর, বালু, রড অতন্ত নিম্নমানের,এসব সামগ্রী দিয়ে কাজ হলে এ রাস্তা দুইদিনও টিকবে না,আমাদের এলাকার কোন দায়িত্বশীল ব্যক্তিতো এটা দেখবাল করে না, ঠিকাদারের লোকজন তাদের ইচ্ছে মত কাজ করছে, এলাকার উন্নয়নে কাজ হচ্ছে এতে আমরা খুশি কিন্তু এ কাজ অতন্ত নিম্নমানের কাজ হওয়ায় আমরা খুশি হতে পারছি না, আমরা চাই কাজের মান ভাল হউক,কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছি। এ ব্যাপারে ঠিকাদার মো. লোকমান হোসেন এর সাথে কথা বলতে গত সোমবার তার ০১৯১-৭২১৪৪৯৪ এই মোবাইল নাম্বারে বার বার রিং করেও পাওয়া যায়নি, তবে স্থানীয় কিছু সংবাদকর্মী জানান তারা ঠিকাদারের সাথে কথা বললে তিনি এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়নি। প্রয়োজনে নির্মাণ সামগ্রী পরীক্ষা করতে পারেন। এ ব্যাপারে সাইডের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ সহকারী প্রকৌশলী মোঃ শৈশব বলেন, এ কাজে ব্যবহৃত নিম্নমানের কিছু ইট ব্যবহার করা হয়েছে এবং বালুও কিছুটা নিম্নমানের এ গুলো সরানোর জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বপ্রাপ্তদের নিদের্শ দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারি প্রকৌশলী মিজানুর রহমান অভিযোগগুলো অস্বীকার করে বলেন, নির্মাণ কাজ সিডিউল মোতাবেকই হচ্ছে,কিছু ইট নিম্নমান ছিল সেগুলো বাতিল করা হয়েছে। প্রেরক মোঃ নিজাম উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া

    বাংলাদেশ সময়: ১২:৫৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০১ জুলাই ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ