• শিরোনাম

    দিনাজপুরে জমি-জমা সংক্রান্তের জেরে স্কুল শিক্ষিকা সুইটির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন আব্দুল আজিজ গং

    দিনাজপুর প্রতিনিধঃ পিসি দাস | মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | পড়া হয়েছে 137 বার

    দিনাজপুরে জমি-জমা সংক্রান্তের জেরে স্কুল শিক্ষিকা সুইটির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন আব্দুল আজিজ গং

    দিনাজপুরে জমি-জমা সংক্রান্তের জেরে স্কুল শিক্ষিকা সুইটির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন আব্দুল আজিজ গং

    apps

    দিনাজপুর সদরের ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের মোহনপুর বলদিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে আবেদনকৃত মোঃ মোজাহার হোসেন-এর জমি-জমা সংক্রান্তের জের ধরে একই এলাকার ভূমিদস্যূ আব্দুল আজিজ, আব্দুর রাজ্জাক, মনিরা বেগম ও আরুজা বেগমসহ গত ০১/০১/২০২১ তারিখে অনুমান সকাল ৯টার সময় মোজাহার হোসেনের বতসবাড়ির পিছনে ওয়ালে তাদের গোডাউনের বাঁশের বেড়া দিয়ে রাস্তা চলাচলের পথ বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি দেখতে পেয়ে মোজাহার হোসেন মৌখিক প্রতিবাদ করলে বিবাদীরা তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে, এক পর্যায়ে মোজাহার তাদের অশালীন ভাষায় গালিগালাজ বন্ধ করতে বললে তারা অতর্কিতভাবে ইটের টুকরা দিয়ে মোজাহার হোসেনের বামচোখে সজোরে আঘাত করলে সে গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে তারা লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় মোজাহার হোসেন চিৎকার করলে এলাকাবাসী তাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এদিকে ১ জানুয়ারি তারিখে মোহনপুর স্কুলের সহকারী শিক্ষিকা মোজাহার হোসেনের কন্যার বই বিতরণ কাজে ব্যস্ত থাকায় এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আব্দুল আজিজ গং মোজাহার হোসেন ও তার কন্যাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য আরুজা বেগমকে বাদী করে জেলা দিনাজপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-১ (সদর) এ একটি ভূয়া মামলা দায়ের করে। গত ১৮/০২/২০২১  মোজাহার হোসেন ও তার স্কুল শিক্ষিকা কন্যা মেরিনা আক্তার সুইটিকে নিয়ে সংবাদপত্রে একটি ভুয়া সংবাদ পরিবেশন করেন আব্দুল আজিজ গং। ঐ দিনই সাংবাদিকরা সত্য তথ্য উদঘাটনের জন্য ঘটনাস্থলে যান সেখানে গিয়ে এলাকাবাসী পক্ষ থেকে জানতে পারেন আব্দুল আজিজ গং দীর্ঘদিন যাবৎ ঐ এলাকায় সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। গত ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখে মোহনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানতে পারে যে, আব্দুল আজিজ শিওর ক্যাশের এজেন্ট হওয়ায় তার কাছ থেকে সরকারি বরাদ্দের টাকা ছাত্র-ছাত্রীদের উত্তোলনের নিমিত্তে গেলে আব্দুল আজিজ প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রীর কাছে ২০/৩০ টাকা করে গ্রহণ করে। এ ঘটনাটি প্রধান শিক্ষক জানার পর আব্দুল আজিজকে বলেন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য মাত্র ২০০/৩০০ টাকা আসে এই টাকা থেকে আপনি কেন অবৈধভাবে ২০/৩০ টাকা নিচ্ছেন। এই কথা বলার সাথে সাথে প্রধান শিক্ষক মোয়াজ্জেম হোসেনকে আব্দুল আজিজ স্টোরের স্বত্বাধিকারী আব্দুল আজিজ ও আব্দুর রাজ্জাক অপমান ও মারধর করেন। এই ঘটনায় গত ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে আব্দুল আজিজের বিরুদ্ধে একটি মানবন্ধন করে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এবং জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। এদিকে এলাকাবাসী আরো জানায়, কিছুদিন আগে একটি অসহায় পরিবারকে হত্যার হুমকি দিয়ে তাদের বাড়ি-ভিটাসহ জায়গা দখল করে নেয় আব্দুল আজিজ গং। এলাকাবাসী আরো জানায় মোজাহার হোসেন একজন সৎ প্রকৃতির লোক, কারো সাথে দ্ব›দ্ব ও মামলা নেই। তিনি মুক্তিযোদ্ধা কিনা এই বিষয়ে এলাকাবাসীর কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, তিনি একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা তিনি মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার জন্য সরকারের নিকট আবেদন করেছেন। তিনি যাচাই-বাছাই নির্দেশিকা ২০১৬ এর মতে ২০/০৪/২০১৭ ইং তারিখে যাচাই-বাছাইয়ে অংশগ্রহণ করেন। মোজাহার হোসেনের কন্যা মেরিনা আক্তার স্কুল শিক্ষিকা হওয়ার কারণে তাকে বিভিন্নভাবে আব্দুল আজিজ গং মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছিল, বিভিন্নভাবে অপদস্ত করার জন্য ওৎ পেতে থাকত। এলাকাবাসী আরো জানায়, পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে মেরিনা আক্তারকে ফাঁসানোর জন্য আরুজা খাতুন ও তার পুত্রবধু মনিরা খাতুন নিজেরাই বিবাদ লাগিয়ে মোজাহার হোসেন ও মেরিনা আক্তার সুইটিসহ অনেকের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। ভুমিদস্যু, সন্ত্রাসী, প্রতারক আব্দুল আজিজ গং এর নিকট থেকে মোজাহার হোসেন ও তার পরিবারকে রক্ষার জন্য সংশ্লিলিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকার সুশীল সমাজ।

    বাংলাদেশ সময়: ৭:০৪ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ