• শিরোনাম

    ডাক্তারকে পেটালেন যুবলীগ সভাপতি,গ্রেফতার ৫

     খায়রুল ইসলাম(মুক্তাগাছা প্রতিনিধি): | বুধবার, ০৭ জুলাই ২০২১ | পড়া হয়েছে 20 বার

    ডাক্তারকে পেটালেন যুবলীগ সভাপতি,গ্রেফতার ৫
    apps

    মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ইমার্জেন্সী চিকিৎসক ডাঃ এএইচএম সালেকিন মামুন কে দরজা বন্ধ করে পেটানোর অভিযোগে উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মাহাবুবুল আলম মনি সহ ৫ জন গ্রেফতার। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১টা ৫৫ মিনিটে মুক্তাগাছা উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মাহাবুবুল আলম মনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ইমার্জেন্সী চিকিৎসক ডাঃ এএইচএম সালেকিন মামুন কে মোবাইল ফোনে তার মায়ের করোনা টেষ্টের জন্য একজন লোক পাঠাতে বলেন। ডাঃ সালেকিন জানান আপাতত বাসায়গিয়ে স্যাম্পল সংগ্রহ বন্ধ রয়েছে, আপনার মাকে হাসপাতালে পঠিয়ে স্যাম্পল দেন। একথা বললে মনি ফোন কেটে দিয়ে ১০মিনিটের মধ্যে ৮/১০ জনের দলবলসহ মনি নিজে হাসপাতালে হাজির হয়ে ইমারজেন্সি মেডিকেল অফিসারের কক্ষে ঢুকে দরজা বন্ধ করে তাকে অশ্লীল ভাষায় গালালসহ কিল ঘুষি, চড় থাপ্পরসহ ব্যাপক মারধর করেন। পরে হাসপাতালে কর্মরত স্টাফরা এসে ডাক্তারকে উদ্ধার করেন। এঘটনার পরপরই ডাক্তাররা জরুরি বৈঠক করে বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ইমারজেন্সি মেডিকেল অফিসার এএইচএম সালেকিন মামুন বাদী হয়ে মুক্তাগাছা থানায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে একটি মামলা দায়ের করেন।রাত পৌনে ২ টায় পুলিশ মাহাবুবুল আলম মনিকে শহরস্থ তার নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তার সহযোগি যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান, জাহিদুল ইসলাম, রানা দে, রাকিব হোসেন শরিফ কে গ্রেফতার করে। ডাক্তার নাজেহাল হওয়ার ঘটনায় আজ বুধবার ময়মনসিংহ সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ নজরুল ইসলাম, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ পরীক্ষিত পাল মুক্তাগাছা হাসপাতালে এসে হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তারদের সাথে মিটিং করেন। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত কর্ম বিরতি শেষে তারা কর্মস্থলে যোগদান করেন। গ্রেফতারকৃত মাহাবুবুল আলম মনি সহ পাঁচ জনকে বুধবার আদালতে সোপর্দ করেছে থানা পুলিশ। এদিকে ডাক্তার লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কপপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ সালেহীনকে মঙ্গলবার দুপুরে দুস্কৃতিকারী কর্তৃক হামলার শিকার এবং শারীরিকভাবে লাঞ্চিত হন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভেফুসে উঠছে চিকিৎসক সমাজ। বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ), ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ মতিউর রহমান ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক ও ডাঃ এইচ এ গোলন্দাজতারা এক বিবৃতিতে ওই ঘটনারতীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিতে সারাদেশের চিকিৎসকরা যখন নিজের জীবনের তোয়াক্কা না করে সাধারণ মানুষের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ঠিক সেই সময়ে দুস্কৃতিকারীদের দ্বারা চিকিৎসক লাঞ্চনার ঘটনা অত্যন্ত উদ্বেগের। অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার জোর দাবী জানান বিএমএন নেতৃবৃন্দ। এ ব্যাপারে মুক্তাগাছা থানারভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ দুলাল আকন্দ জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কপপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ সালেহীন কে মঙ্গলবার দুপুরে কতিপয় দুস্কৃতিকারী কর্তৃক হামলার শিকার এবং শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রধান অভিযুক্ত মাহাবুবুল আলম মনি ও তার চার সহযোগি সহ পাঁচ জনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

    বাংলাদেশ সময়: ৭:০২ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৭ জুলাই ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ