• শিরোনাম

    জামালপুরে দায়িত্বশীল ব্যক্তি আনোয়ার হোসেন রাঙ্গাকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চায়

    আল মাসুদ লিটন জেলা প্রতিনিধি জামালপুর | রবিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 28 বার

    জামালপুরে দায়িত্বশীল ব্যক্তি আনোয়ার হোসেন রাঙ্গাকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চায়
    apps

    – সরিষাবাড়ী উপজেলার ৪নং আওনা ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান। তিনি সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ীক সংগঠন সহ বিভিন্ন সংগঠনের বিভিন্ন পদে দায়িত্বরত আছেন,এবং ঠিকাদারি সহ জগন্নাথগঞ্জ ঘাট একাধিক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মালিক তিনি। বৃক্ষ তোমার নাম কি ফলে তার পরিচয় “প্রবাদ বাক্যটি প্রযোজ্য তাদের জন্য,যারা জনপ্রতিনিধি অথবা দলীয় পদ-পদবীতে না থেকেও ,জনগণের সেবায় নিজেকে জড়িয়ে রাখেন। তাদের নামে নয়, কাজেই পরিচয় পাওয়া যায়। শুধু অর্থ সম্পদ বা প্রতিনিধিত্ব অথবা দলীয় নেতৃত্বের ক্ষমতা থাকলেই জনসেবা করা যায় না।জনসেবা করার জন্য প্রয়োজন একটি সুন্দর মন,মানবিক মূল্যবোধ, নৈতিকতা সাহসিকতা এবং দেশপ্রেম ও দলীয় আদর্শ।জনসেবার ইচ্ছা থাকলে একজন মানুষ অর্থ, আধিপত্যের মালিক না হয়েও তার শ্রম ও মেধা দিয়ে জনসেবা করতে পারে,ইচ্ছা না থাকলে শতকোটি টাকার মালিক অথবা দলীয় পদপদবী ও প্রতিনিধিত্ব থাকলেও জনসেবা করা সম্ভব নয়।দলীয় পদপদবীর ক্ষমতা আর প্রতিনিধিত্বের লালসার ঊর্ধ্বে উঠে যারা এলাকার দুর্ভোগে ও অবহেলিত অসহায় মানুষের পাঁশে এসে দাঁড়ায় তাদের নাম ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচার করতে হয়না। তারা তাদের কর্মের শুনেই জনগণের প্রসংশা কুড়িয়ে নেয়। তেমনি একজন সাদামাটা মানুষ। তিনি ব্যবসায়ীক কাজের ফাঁকে মাতৃভূমি ও মানুষের ভালবাসার টানে স্থানীয় মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের দাবীর প্রেক্ষিতে সামাজিক বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজসহ অসহায় মানুষের পাশে দাড়াতে হয় তাহার। সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয় মানুষের সাথে কথা বলে জানাযায় স্থানীয় মানুষের সার্বিক সহযোগিতায় সরকারি বরাদ্দ ছাড়াই নিজস্ব অর্থায়নে রাস্তা মেরামত সহ গরিব, অসহায়,কন্যাদায়গ্রস্ত ও দোস্থ রোগীর চিকিৎসার্থে মানুষদের নগদ অর্থ সহায়তা সহ বিভিন্ন সেবামূলক কাজ করেছেন। সেই জনমানুষের প্রিয় নেতা আনোয়ার হোসেন রাঙ্গা । এলাকায় তিনি বর্তমান সময়ের ব্যতিক্রমি এক নেতা,বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত। তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ হাসান এর কাছে ব্যক্তি হিসাবেও তৃণমূল আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের কাছে পরিচিত। তিনি একজন জনসেবক। উনি জনসেবার পাশাপাশি আওয়ামীলীগকে এগিয়ে নিতে তৃণমূলে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। স্থানীয়রা জানান আনোয়ার হোসেন রাঙ্গা কোন জনপ্রতিনিধি নয়,ক্ষমতাসীন দলে উনার নেই কোন গুরুত্বপূর্ণ পদপদবী। তিনি একজন সাধা মনের মানুষ। যার চিন্তা চেতনা শুধু জনসেবা করা। শুধু তাই নয় তৃণমূল নেতা-কর্মীদের সুখ-দুঃখের খোঁজখবর নিয়ে তাদের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে থাকেন। এ ব্যাপারে উপজেলার ৪নং আওনা ইউনিয়নের অনেকেই জনান কি বলবো উনার কথা,উনি কোন জনপ্রতিনিধি নয়,তবুও এলাকার রাস্তাঘাট সহ জনসেবায় অর্থ শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন,উনি এলাকায় র্সবদা এলাকার মানুষদের নিয়ে,সমস্যা গুলো কিভাবে সমাধান করা যায় এ নিয়ে ভাবেন এবং উনার সামর্থ্য অনুযায়ী সমাধান করার চেষ্টা করেন। বর্তমান সময়ে এলাকায় যদি কোন নিষ্ঠাবান সমাজসেবক,ও সাধারণ মানুষের বন্ধু থাকেন তাহলে আমরা বলবো উনিই আছেন,এই এলাকার যে কাউকে জিজ্ঞাস করলে বলবে।আমরা উনার সার্বিক মঙ্গল কামনা করি ও আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমাদের এই জনপদে উনার মতো একজন দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চায়। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী।

    বাংলাদেশ সময়: ১০:৩৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ