• শিরোনাম

    চকরিয়ায় কর্মহারা শ্রমজীবীদের মাঝে ইউএনওর মানবিক সহায়তা

    অনলাইন ডেস্ক | বুধবার, ০৭ জুলাই ২০২১ | পড়া হয়েছে 57 বার

    চকরিয়ায় কর্মহারা শ্রমজীবীদের মাঝে ইউএনওর মানবিক সহায়তা
    apps

    শান্ত বণিক, বিশেষ প্রতিনিধি:

    করোনার বিস্তাররোধে সরকারঘোষিত বিধি-নিষেধ কঠোরভাবে প্রতিপালনে কক্সবাজারের চকরিয়ায় সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে উপজেলা প্রশাসন। সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশকে সাথে নিয়ে প্রশাসনের তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পৌরশহর ছাড়াও উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় এই তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে।

    এদিকে শ্রমজীবী মানুষ ইজিবাইক, রিকশা নিয়ে কাজের সন্ধানে বের হয়ে পড়ায় আজ বুধবার সকাল থেকে পৌরসভাসহ উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় যান ও জন চলাচল রোধ করতে নতুন করে মাঠে নামানো হয়েছে ১৫০ জন আনসার সদস্যকেও। তারা নির্দিষ্ট স্থানে সড়কে অবস্থান করে ইজিবাইক (টমটম), রিকশা চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে।

    অপরদিকে জরুরি, প্রয়োজন ছাড়া যেসব মানুষ অযথা ঘর থেকে বের হচ্ছেন তাদেরকেও মুখোমুখি হতে হচ্ছে প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের। বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মুখে মাস্ক না থাকা, অযথা বের হওয়াসহ নানা কারণে জরিমানা গুনতে হয়েছে।ৱ

    উপজেলা প্রশাসনের তথ্যানুযায়ী, ভ্রাম্যমাণ আদালতে বুধবার সারাদিন ১৭টি মামলায় ২৫ জনের কাছ থেকে নগদ ৪২২০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। উপজেলাজুড়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, কঠোর বিধিনিষেধ প্রতিপালনে চকরিয়ায় নিযুক্ত আরেক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. দিদারুল আলম, চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হোসেন।

    চকরিয়ার ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ কালের কণ্ঠকে বলেন, করোনার বিস্তার রোধকল্পে সরকারঘোষিত বিধি-নিষেধ কঠোরভাবে প্রতিপালনে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এর পরও যেসব অসাধু ব্যবসায়ী দোকান খুলছে সেখানে অভিযান চালানো হচ্ছে। এছাড়াও যত্রতত্র অযথা ঘুরাফেরা, মাস্ক না পরাসহ বিভিন্ন কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দোষ স্বীকার করাসহ আর্থিকভাবে জরিমানা করা হচ্ছে।

    চকরিয়ায় শ্রমজীবীদের মানবিক সহায়তা প্রদান ইউএনওর
    এদিকে কঠোর বিধিনিষেধের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমজীবী মানুষগুলো পরিবার সদস্যদের দুই বেলা খাবার যোগার করা নিয়ে পড়েছেন বেকায়দায়। কোথাও কোনো কর্ম না থাকার কারণে হাহাকার দেখা দেওয়া শ্রমজীবী মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ। মানবিক সহায়তা হিসেবে ইউএনও এসব শ্রমজীবী তথা ইজিবাইক (টমটম), রিকশা, ভ্যান চালক, দিনমজুর নারী-পুরুষ, পত্রিকা বিক্রেতা হকারসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরির শ্রমজীবীদের খাদ্যসহায়তা তুলে দিচ্ছেন ইউএনও।

    কঠোর বিধিনিষেধ তথা লকডাউন চলাকালে সরজমিন পৌরশহর ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অবস্থান নিয়ে অভিযান পরিচালনা করছে। এর পরও মাঝেমধ্যে ইজিবাইক (টমটম), রিকশা নিয়ে বেরিয়ে পড়ছেন অনেক চালক। এ সময় তিন চাকার এসব যানবাহনকে মুখোমুখি করা হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের। তবে তাদেরকে জরিমানা না করে করোনার ভয়াবহতা বোঝানোর পাশাপাশি মানবিক খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন ইউএনও। এতে শ্রমজীবী পরিবারগুলোও বেশ খুশি প্রশাসনের পক্ষ থেকে খাদ্যসহায়তা পেয়ে।

    উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘মাঠপর্যায়ে দায়িত্ব পালনের সময় কাজের সন্ধানে বিভিন্ন শ্রমজীবী মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ছেন। বিশেষ করে ইজিবাইক, রিক্সাচালসক শ্রমজীবীর সংখ্যা বেশি। তাই তারা যাতে এই সময়ে খাবার সংকটে না পড়েন, সেজন্য তাদেরকে মানবিক খাদ্যসহায়তা হিসেবে পাঁচ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, এক লিটার তেল, এক কেজি করে মসুর ডাল, লবণ ও পেঁয়াজ দেওয়া হচ্ছে।’

    ইউএনও আরো জানান, যারা সরাসরি যোগাযোগ করছেন এবং ৩৩৩ তে ফোন করে জরুরি খাদ্যসহায়তা চাচ্ছেন তাদেরকে পর্যায়ক্রমে এই মানবিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। বিধিনিষেধ চলাকালে একই সহায়তা দেওয়া হবে নিম্নআয়ের পরিবারগুলোকে। ইতোমধ্যে প্রায় দুই শতাধিক শ্রমজীবী পরিবারকে মানবিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। তথ্যসূত্র: কালের কণ্ঠ

    বাংলাদেশ সময়: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৭ জুলাই ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    পরম শ্রদ্ধেয় বাবার স্মরণে

    ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

    আজ বিজয়া দশমী

    ২৬ অক্টোবর ২০২০

    আর্কাইভ