• শিরোনাম

    গণমানুষের অধিকার ও ভাগ্যোন্নয়নে নিরন্তর পথচলার নাম আওয়ামী লীগ-এসএম মান্নান কচি।

     নারগিস পারভীনঃ | বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২ | পড়া হয়েছে 59 বার

    গণমানুষের অধিকার ও ভাগ্যোন্নয়নে নিরন্তর পথচলার নাম আওয়ামী লীগ-এসএম মান্নান কচি।
    apps

     বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। বাংলার ইতিহাসে একটি ঐতিহাসিক দিন ২৩ এ জুন। দেশের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দলটি এবার পা রাখছে ৭৪ বছরে, যার সম্মুখ নেতৃত্বে সংগঠিত হয়েছিল ৪৭-৫২ এর ভাষা আন্দোলন এবং ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ। ধর্মনিরপেক্ষতাকে আদর্শ হিসাবে গ্রহণ করে ১৯৫৫ সালে এই দল নামকরণ হয় ‘পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ।’ মুক্তিযুদ্ধের পরে পাকিস্তান শব্দটি বাদ গিয়ে দলটি ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’ নামে কার্যক্রম শুরু করে। ইতি পূর্বে ১৯৪৭ সালে স্বতন্ত্র ভাষা ও সংস্কৃতির অঞ্চল নিয়ে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার মাত্র ৪ মাস ২০ দিনের মধ্যে তখনকার তরুণ যুবনেতা শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি গঠন করেন সরকারবিরোধী ছাত্র সংগঠন পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ। এরই ধারাবাহিকতায় পরের বছর ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন ঢাকার স্বামীবাগের কেএম দাস লেনের রোজ গার্ডেনে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর উদ্যোগে আয়োজিত কর্মী সম্মেলনে গঠন করা হয় পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ। মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী সভাপতি, টাঙ্গাইলের শামসুল হক সাধারণ সম্পাদক, শেখ মুজিবুর রহমানকে (কারাবন্দি ছিলেন) যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত হয় আওয়ামী (মুসলিম) লীগের প্রথম কমিটি। সেই ৬ দফা আন্দোলনের পথ বেয়েই ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান, ৭০-এর নির্বাচনে বাঙালির নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ ও ৭১-এর মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের সফল নায়ক ছিলেন তৎকালীন আওয়ামী লীগ সভাপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর স্মৃতি স্মরনে একান্ত সাক্ষাৎকারে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি গণমাধ্যমকে বলেন, ইতিহাসের কালজয়ী সাক্ষী বহনকারী একটি দল যা বাংলাদেশের রাজনীতির মূলধারাই স্বাধীন বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব ও আওয়ামী লীগের ইতিহাস একসূত্রে গাঁথা। ইতিহাস রচনাকারী অবিসংবাদিত নেতা বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর সুযোগ্য বঙ্গ তনয়া দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে চলা,দীর্ঘ সময়ের গণমানুষের প্রতিষ্ঠান আওয়ামী লীগ এ দেশের মানুষের অধিকার ও ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ শুধু এ দেশের প্রাচীন ও সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠনই নয়, আবেগ ও অনুভূতির বিশ্বস্ত ঠিকানা হিসেবে হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে বাঙালি জাতি। লক্ষ্য মুজিব সেনাদের মেধা, পরিশ্রম, ত্যাগ ও দক্ষতায় দলকে আরও শক্তিশালী করে জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাবে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ, উন্নত ও আধুনিক সোনার বাংলাদেশ, ইনশাআল্লাহ।

    বাংলাদেশ সময়: ৪:১১ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ