• শিরোনাম

    কোনো মাদক ব্যবসায়ী খুলনা মহানগর ও জেলা যুবলীগের কমিটিতে স্থান পাবে না

    খুলনা ব্যুরো | রবিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২৩ | পড়া হয়েছে 19 বার

    কোনো মাদক ব্যবসায়ী খুলনা মহানগর ও জেলা যুবলীগের কমিটিতে স্থান পাবে না
    apps

    যুবলীগ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সম্মেলন নতুন নেতৃত্বের জন্ম দেয়। কোনো মাদক ব্যবসায়ী খুলনা মহানগর ও জেলা যুবলীগের কমিটিতে স্থান পাবে না। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করতে হবে। খুলনা মহানগর ও জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে রোববার দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবের শহীদ সাংবাদিক হুমায়ুন কবির বালু মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় নেতৃবৃন্দ এ কথা বলেন। খুলনা মহানগর ও জেলা যুবলীগ এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। আগামীকাল মঙ্গলবার নগরীর শিববাড়ি মোড়ের পাবলিক হল প্রাঙ্গনে (পুরাতন) এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে ।

    মতবিনিময় সভায় যুবলীগ নেতৃবৃন্দ বলেন, বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্য প্রতিহত করতে যুবলীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

    যুবলীগের নেতাকর্মীরা সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে ছিল উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, যুবলীগের নেতাকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের ঘরে ঘরে গিয়ে অক্সিজেন সেবা ও খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে। যুবলীগ নেতাকর্মীরা প্রত্যন্ত অঞ্চলের দরিদ্র কৃষকদের জমির ধান কেটে দিয়ে সহযোগিতা করেছে।

    মতবিনিময় সভায় বক্তৃতা করেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুব্রত পাল ও অ্যাডভোকেট শামীম আল সাইফুল সোহাগ, খুলনা জেলা যুবলীগ সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান বাবু এমপি, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সফিকুর রহমান পলাশ, যুগ্ম-আহ্বায়ক শেখ শাহজালাল হোসেন সুজন প্রমুখ।

    উপস্থিত ছিলেন, আসাদুজ্জামান খান রিয়াজ, সরদার জাকির হোসেন, হারুন অর রশিদ, ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজুর রহমান সোহাগ, দেব দুলাল বাড়ই বাপ্পি, মো. নূরুজ্জামান প্রমুখ।

    সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি। এছাড়া সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ম-লীর সদস্য পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য, খুলনা সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেক, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এবং খুলনা সদর আসনের সংসদ সদস্য বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল।

    উল্লেখ্য, ২০০৩ সালের ২৫ মে জেলা যুবলীগের সর্বশেষ সম্মেলন ও ২০১৯ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর মহানগর যুবলীগের দ্বিতীয় দফায় আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। দলীয় রাজনীতিতে মহানগর যুবলীগ সক্রিয় থাকলেও দীর্ঘদিন সম্মেলনের অভাবে প্রায় নিস্ক্রিয় জেলা যুবলীগ। ২০২১ সালে ২২ জানুয়ারি সম্মেলন ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

    সর্বশেষ ২০০৩ সালের ২৫ মে খুলনা জেলা যুবলীগের সর্বশেষ ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে কামরুজ্জামান জামাল সভাপতি ও আক্তারুজ্জামান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এর প্রায় ৫-৬ মাস পর ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়। অপরদিকে ২০১০ সালের ১১ জানুয়ারি মহানগর যুবলীগের ৫১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্র। ঐ কমিটিতে অ্যাডভোকেট সরদার আনিসুর রহমান পপলুকে আহবায়ক এবং মনিরুজ্জামান সাগর ও হাফেজ মো. শামীম যুগ্ম-আহবায়ক ছিলেন। দ্বিতীয় দফার আহবায়ক কমিটিতে আহবায়ক হয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা সফিকুর রহমান পলাশ। এছাড়া যুগ্ম আহবায়ক করা হয় মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহজালাল হোসেন সুজনকে।

    এদিকে, দীর্ঘ ১৪ বছর পর খুলনা মহানগর ও ২০ বছর পর জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপন বিরাজ করছে যুবলীগের তৃণমূল নেতার্মীদের মধ্যে। মহানগর ও জেলার প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এখন সাজ সাজ রব। নেতাদের ছবি সম্বলিত দৃষ্টি নন্দন তোরণ, প্যানা, পোস্টারে ভরে গেছে রাস্তাঘাট। কোথাও কোথাও আবার করা হয়েছে আলোকসজ্জা। শুধু যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গেই নয়; আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদেরও দ্বারে দ্বরে ধর্ণা দিচ্ছেন পদ প্রত্যাশীরা।

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৩১ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২৩

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ