• শিরোনাম

    ঋণের টাকায় কেনা অটোভ্যানটি হারিয়ে নিঃস্ব এখন তোতা শেখ

     টি এম এ হাসান, সিরাজগঞ্জ : | সোমবার, ২২ নভেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 7 বার

    ঋণের টাকায় কেনা অটোভ্যানটি হারিয়ে নিঃস্ব এখন তোতা শেখ
    apps

    নিজের জমানো ও ঋণের টাকা দিয়ে কেনা একমাত্র সম্বল অটোভ্যানটি বাড়ির সামনে তালা দিয়ে পাশের মসজিদে জুম্মার নামাজ পড়ছিলেন তোতা শেখ। বের হয়ে দেখেন আয় ও সংসার চালানোর একমাত্র সম্বল অটোভ্যানটি আর নেই। অটোভ্যান হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন ভ্যান চালক তোতা শেখ। সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল ইউনিয়নের চরটেংরাইল গ্রামের মৃত জব্বার আলীর পুত্র তোতা শেখ (৫৯)। চোখের জল আর কান্নাই বলে দেয় অটোভ্যান হারিয়ে কতটা অসহায় হয়ে পরেছেন তোতা শেখ। গত শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) জুম্মার নামাজের সময় তার অটোভ্যানটি চুরি হয়ে যায়। এমনই তথ্য পাওয়া যায় সমাজকর্মী মামুন বিশ্বাসের একটি ফেইসবুক স্ট্যাটাসে। তিনি এই অসহায় ব্যাক্তিকে একটি অটোভ্যান কিনে দিতে চেয়েছেন উচ্চবিত্তদের সহযোগিতা। স্ট্যাটাসে মামুন বিশ্বাস লেখেন, শুন্য পকেট আর খালি পেটে ২২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে তোতা শেখ এসেছিলেন আমার কাছে। হাত ধরে কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেছেন, বাবা একটু দেখবেন। আমি শুধু বললাম কাকা আল্লাহ ভরসা আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। তোতা কাকাকে পাশে বসিয়ে কিছু খাওয়ালাম ও সামান্য কিছু টাকা দিলাম চাল কিনে বাড়িতে গিয়ে চাচীকে সাথে নিয়ে খাওয়ার জন্য। মামুন বিশ্বাস বলেন, ঋণের চল্লিশ হাজার টাকা ও নিজের জমানো কিছু টাকা মিলিয়ে অটোভ্যানটি কিনেছিলেন তোতা শেখ। এই ভ্যান চালিয়েই সংসার চালানোর পাশাপাশি ঋণের কিস্তির টাকা শোধ কততেন তিনি। আয়ের সেই একমাত্র ভ্যানটিও হারিয়ে গেছে তাত, এখন কিভাবে কিস্তি দিবে , কিভাবে সংস্যার চালাবে জানেনা সে। তিনি আরও বলেন, জেলার কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল ইউনিয়নের চরটেংরাইল গ্রামের মৃত জব্বার আলীর পুত্র তোতা শেখ (৫৯) এর নিজের বলতে কিছুই নেই। দুই ছেলে থাকলেও তাদের আলাদা সংসার তাই বাবা-মাকে দেখেন না। তোতা শেখ অটোভতান চালিয়ে সারাদিন আয় করে স্ত্রীকে নিয়ে সংসার চালাতেন ও কিস্তি দিতেন। পোস্টে মামুন বিশ্বাস ৫৩-৫৫ হাজার টাকার ব্যবস্থা করে অসহায় তোতা শেখকে একটি অটোভ্যান কিনে দেয়ার জন্য সমাজের উচ্চবিত্তদের এই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

    বাংলাদেশ সময়: ১২:১৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ২২ নভেম্বর ২০২১

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ