• শিরোনাম

    আইটি শিল্প এবং স্টার্টআপের বিকাশে ঢাবির আইবিএ এবং ইডিজিই প্রকল্পের মধ্যে চুক্তি

    নিজস্ব প্রতিবেদক | বৃহস্পতিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২২ | পড়া হয়েছে 20 বার

    আইটি শিল্প এবং স্টার্টআপের বিকাশে ঢাবির আইবিএ এবং ইডিজিই প্রকল্পের মধ্যে চুক্তি
    apps

    দেশের আইটি শিল্প এবং স্টার্টআপের বিকাশে আইটি কোম্পানীগুলোর
    কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ ও স্টার্টআপের মেন্টরিংয়ের জন্য ঢাকা
    বিশ্বদ্যিালয়ের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (আইবিএ)
    এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) এনহেন্সিং ডিজিটাল
    গভর্নমেন্ট অ্যান্ড ইকোনমি (ইডিজিই) প্রকল্পের মধ্যে আজ এক সমঝোতা স্মারক
    স্বাক্ষরিত হয়।

    সমঝোতা স্মারক অনুসারে আইটি প্রতিষ্ঠানের ৫শ শীর্ষ কর্মকর্তাকে আইবিএ এর
    ‘সিএক্সও’ এবং ২ হাজার ৫শ জন মধ্যম স্তরের কর্মকর্তাকে অ্যাডভান্সড
    সার্টিফিকেশন ফর ম্যানেজমেন্ট প্রফেশনালস (এসিএমপি) কোর্সে প্রশিক্ষণ
    প্রদান করা হবে। এছাড়াও ৫শ স্টার্টআপ উদ্যোক্তাদেরকে মেন্টরিং এর মাধ্যমে
    সহায়তা করবে আইবিএ।

    তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং
    সর্টার্টআপ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদের উপস্থিতিতে স্ব
    স্ব প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন ইডিজিই প্রকল্প
    পরিচালক ড. মুহম্মদ মেহেদী হাসান এবং আইবিএ’র পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ
    এ. মোমেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইবিএ’র অধ্যাপক শেখ
    মোরশেদ জাহান, ইডিজিই উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. সাইফুল আলম খান, ডিজিটাল
    লিডারশিপ একাডেমির টিম লিডার ড. মাহফুজ শামীম।

    অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, আমাদের
    বর্তমান লক্ষ্য ২০৪১ সাল নাগাদ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ। ইডিজিই
    প্রকল্প এমন একটি প্রকল্প, যা শুধু আইসিটি শিল্পের বিকাশেই সহযোগিতা করবে
    না, স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণেও সহযোগিতা করবে।

    স্টার্টআপ বাংলাদেশ কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদ বলেন,
    সরকার দেশে স্টার্টআপের সংস্কৃতি বিকশিত করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে। এ
    লক্ষ্যে নানা উদ্যোগের বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ইডিজিই প্রকল্পের সহযোগিতায়
    আইবিএর মাধ্যমে ৫শ’ স্টার্টআপের মেন্টরিং করে স্টার্টআপের সংস্কৃতি গড়ে
    তোলার ক্ষেত্রে একটি অনন্য উদ্যোগ।

    ইডিজিই প্রকল্প পরিচালক ড. মেহেদী জানান, নতুন উদ্যোক্তা তৈরি ও দেশের
    আইটি শিল্পের বিকাশের জন্য প্রয়োজন আইটি কোম্পানির কর্মকর্তাদের
    প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতার উন্নয়ন। কোম্পানিগুলো দক্ষতা ব্যবসার
    প্রসার ঘটায়, যা মূলত আইসিটি শিল্পের বিকাশে অবদান রাখে। এ ক্ষেত্রে
    আইবিএ’র এসিএমপি কোর্স অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে তিনি
    উল্লেখ করেন।

    বাংলাদেশ সময়: ৯:০৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২২

    dainikbanglarnabokantha.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ